CALL OUR HOTLINE AT: 732-435-1414

মানবী (বাংলা)

মানবীর কথা

১৯৮৫ সালে  নিউ জার্সিতে প্রতিষ্ঠিত একটি নন-প্রফিট (অলাভ-জনক) সংগঠন। সংস্কৃতে মানবী শব্দটির অর্থ হল ‘নারী’। মানবীর লক্ষ্য হল  বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, পাকিস্তান,ও  শ্রীলঙ্কা থেকে  যাঁরা আমেরিকায় এসেছেন, বিপদে আপদে সেই সব মহিলাদের সাহায্য করা ও তাঁদের ক্ষমতায়ন।  মানবীর বৃহত্তর উদ্দেশ্য সবার মধ্যে নারীর অধিকার সম্বন্ধে সচেতনতা জাগিয়ে তুলে সমাজে পরিবর্তন আনা – যাতে নারী নির্যাতন বন্ধ হয়। তাই সব দেশের নারীমুক্তি আন্দোলনের প্রতি মানবীর সমর্থন রয়েছে।

মানবী একটি ধর্ম নিরপেক্ষ সংস্থা;  কোন বৈষম্যমূলক চিন্তাধারার স্থান এতে নেই।  সব মহিলারই সম্মানের সঙ্গে ও শান্তিপূর্ণ ভাবে বেঁচে থাকার অধিকার রয়েছে – তাই মানবী মনে করে।

 [যে সামাজিক পরিবেশ,মতাদর্শ,চিন্তাধারা,মূল্যবোধ,ও  আচার-ব্যবহার নারীকে তার প্রাপ্য সম্মান থেকে বঞ্চিত করে তাকে হেয় করে ও অন্যের ওপর নির্ভরশীল হয়ে থাকতে বাধ্য করে – তাও এক ধরণের নারী-নির্যাতন।]

 

কর্মসূচী

যে কোন বিপদ বা সঙ্কটে দক্ষিণ এশিয় মহিলারা মানবীর কাছে সাহায্য চাইতে পারেন। ব্যক্তিগত সব তথ্য মানবী সম্পূর্ণ ভাবে গোপন রাখে। ধর্ম, বয়স, আর্থিক সামর্থ্য, জাতি, দেশ, ভাষা, শারীরিক ক্ষমতা, ও  যৌনতা নির্বিচারে মানবী মহিলাদের নিরাপদে থাকতে সাহায্য করে। সব সাহায্যই বিনামূল্যে দেওয়া হয়।

মানবীর সাহায্য তালিকা:

  • বিশেষ সঙ্কটে তাৎ‌ক্ষণিক সাহায্য
  • অ্যাডভোকেসি বা সঙ্কটের মূল্যায়ন করে সাহায্য
  • নিজের ভাষা ও সংস্কৃতি অনুযায়ী পরামর্শ
  • মহিলাদের জন্যে মিলনী
  • আইন সংক্রান্ত পরামর্শ
  • অভিবাস বা ইমিগ্রেশন সম্পর্কিত আইনি সাহায্য
  • দোভাষীয় অনুবাদ
  • বিশেষ প্রয়োজনে যাতায়াতে সহায়তা
  • আদালত ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সঙ্গে যাওয়া
  • নিরাপদ আবাস
  • সমাজ সচেতনতার জন্যে আলোচনা সভা
  • নারী অধিকার সম্পর্কে প্রশিক্ষণ

 

আশিয়ানা

১৯৯৭ সালে দক্ষিণ এশিয় মহিলাদের জন্যে মানবী একটি নিরাপদ নিবাস প্রতিষ্ঠা করে। এই আবাসটির নাম  আশিয়ানা – উর্দুতে যার অর্থ‘বাসা’। পারিবারিক অত্যাচারের ভয়ে যে মহিলারা নিজের বাড়িতে থাকতে পারছেন না বা যাঁদের বাড়িতে থাকা বিপজ্জনক, তাঁরা ও তাঁদের সন্তানেরা আশিয়ানায় বাস করতে পারেন। এই আবাসে দক্ষিণ এশিয় মহিলারা নিজেদের পরিচিত পরিবেশ খুঁজে পাবেন। আশিয়ানার নিবাসী মহিলারা আইনি,আর্থিক,ভাষা শিক্ষা,ও চাকরী খোঁজার ব্যাপারে সাহায্য পেতে পারেন। মহিলারা যাতে নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারেন আশিয়ানা সে ব্যাপারে সচেষ্ট। যে কোন মহিলার আশিয়ানায় থাকার মেয়াদ দেড় বছর পর্যন্ত। আশিয়ানায় বাস করার সময়ে নির্যাতিত মহিলারা নিজেকে মানসিক,শারীরিক,ও আর্থিক ভাবে সুস্থ করে তুলে ভবিষ্যৎ জীবনের জন্যে প্রস্তুত হতে পারেন।

 

স্বেচ্ছাসেবার কাজ

সমাজের সাহায্য ছাড়া মানবীর কাজ চলতে পরে না। মহিলাদের ওপর অত্যাচার বন্ধ করতে বহু মানুষই আজ অঙ্গীকারবদ্ধ। সে রকম বহু স্বেচ্ছাসেবক মানবীর সঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করে চলেছে। মানবীর সঙ্গে যুক্ত হয়ে সকলেই কাজ করতে পারেন। স্বেচ্ছাসেবক হতে হলে মানবীর একটি কর্মগোষ্ঠীর সঙ্গে যুক্ত হতে হবে:

  • পরামর্শ দান ও অন্যান্য সাহায্য
  • আইনি সাহায্য
  • আশিয়ানা সংক্রান্ত বিভিন্ন কাজ
  • সমাজে সচেতনতা বাড়ানো
  • মানবীর সংবাদপত্র
  • আর্থিক ক্ষমতায়নের কাজে সাহায্য
  • আর্থিক ও অন্যান্য দান সংগ্রহ

 

সদস্য হওয়ার নিয়মাবলী

বয়স,ধর্ম,আর্থিক সামর্থ্য,জাতি,যৌনতা,শারীরিক ক্ষমতা, ও দেশ নির্বিচারে সব স্ত্রী পুরুষই মানবীর সদস্য হতে পারেন। মানবীর বোর্ডের সদস্য হতে হলে অন্ততঃ একটি স্বেচ্ছাসেবী কর্মগোষ্ঠীর সংগে যুক্ত হয়ে কাজ কিছুদিন করতে হবে। সদস্য মাত্রেই মানবীর সংবাদপত্র ও বিভিন্ন ধরনের ঘোষণা নিয়মিত পাবেন।

  • জন প্রতি বাৎসরিক সদস্য মূল্য – $৩৫.০০
  • জন প্রতি আজীবন সদস্য মূল্য – $৫০০.০০
  • জন প্রতি বাৎ‌সরিক ছাত্র সদস্য মূল্য – $২০.০০

সদস্য মূল্য পাঠাতে মানবীর নামে চেক লিখুন, ও উল্লেখ করুন – membership

নাম:
ঠিকানা:
টেলি:
ফ্যাক্স:
ই-মেল